সৌদি আরব করোনা মহামারি রোধে ওমরাহ নিষেধাজ্ঞা ধাপে ধাপে প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছে।

গতকাল সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) তিন ধাপে ওমরাহ নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার ঘোষণা দেয় সৌদির হজ ও ওমরাহ বিষয়ক মন্ত্রণালয়। প্রথমে সৌদি আরবের বাসিন্দারা ওমরায় অংশগ্রহণের সুযোগ পাবে। এরপর ধাপে ধাপে অন্যান্য দেশের জন্যও ওমরাহ চালু হবে।

হজ ও ওমরাহ বিষয়ক মন্ত্রী মুহাম্মাদ সালেহ বেনটিন বলেন, ‘স্বাস্থ্য সুরক্ষার নিশ্চয়তা সৌদি আরব সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ। তাই ধীরে ধীরে তিন ধাপে হজ কার্যক্রম আবার শুরু করা নিয়ে কাজ করছে মন্ত্রণালয়।’

বেনটিন বলেন, ‘প্রথম পর্যায়ে সৌদি আরবের স্থানীয় নাগরিক ও প্রবাসীরা ওমরায় অংশগ্রহণের সুযোগ পাবে। ওমরাহ সেবা স্বাভাবিক ধারণক্ষমতার ৪০ ভাগ থাকবে। দ্বিতীয় ধাপে তা বৃদ্ধি পেয়ে ৭৫ ভাগ হবে। আর সর্বশেষে কার্যক্রম পুরোপুরি চালু হবে এবং সৌদি আরবে বাইরে থেকেও সবাই ওমরাহ কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করতে পারবে। তবে সর্বাবস্থায় স্বাস্থ্য সুরক্ষায় সর্বাধিক গুরুত্ব দেওয়া হবে।’

তা ছাড়া অনলাইনের মাধ্যমে ওমরায় অংশগ্রহণকারীদের সেবা প্রদান করা হবে। বেনটিন বলেন, স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক ৩০টি প্রতিষ্ঠান অনলাইনে হাজিদের প্রয়োজনীয় পরিষেবা প্রদান করবে। সৌদি আরবসহ বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে ওমরাহ বিষয়ক প্রতিষ্ঠানগুলো প্রায় ১৬ মিলিয়ন হাজিদের সেবা দিতে পারে।

হজ ও ওমরাহ বিষয়ক উপমন্ত্রী আবদুল ফাত্তাহ মাশাত বলেন, ‘প্রাতিষ্ঠানিক পরিবর্তন, ওমরাহ কার্যক্রম পরিচালনা ও ওমরায় অংশগ্রহণকারীদের অভিজ্ঞতা সম্পর্কে জানতে একটি ফোরাম গঠন করা হয়। এ ছাড়া পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে ওমরাহযাত্রীদের মানসম্মত সেবা নিশ্চিত করতে মন্ত্রণালয় কাজ করছে।’

মাশাত আরো বলেন, ‘২০১৯ সালে ৫.৩ মিলিয়ন সৌদি নাগরিক, ৬.৪ মিলিয়ন প্রবাসী, ১.২ মিলিয়ন উপসাগরীয় দেশের বাসিন্দা এবং অন্যান্য দেশ থেকে ৭.৫ মিলিয়ন মানুষ ওমরায় অংশগ্রহণ করেছে।’ তিনি আরো বলেন, আগে অন্যান্য দেশের নাগরিকদের ওমরাহর জন্য ভিসা ও অন্যান্য কাজ রেজিস্ট্রিকৃত কোনো প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে সম্পাদন করতে হতো। পুরো পদ্ধতির উন্নয়নের জন্য মন্ত্রণালয় প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করবে।’

সূত্র : আরব নিউজ।

আপনার মতামত লিখুন :