জানা গেছে ‘পেঁয়াজের মূল্য নিয়ন্ত্রণে রাখতে এ বছর সর্বকালের রেকর্ড ভেঙে সর্বোচ্চ পরিমাণ পেঁয়াজ আমদানি করা হবে। এ ছাড়া আগামী ১৩ তারিখ থেকে ন্যায্যমূল্যে খোলাবাজারে পেঁয়াজ বিক্রি শুরু করবে টিসিবি।’

আজ বৃহস্পতিবার (১০ সেপ্টেম্বর) সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে বাণিজ্যমন্ত্রীর সঙ্গে হাঙ্গেরির পররাষ্ট্রমন্ত্রীর নেতৃত্বে তিন সদস্যবিশিষ্ট প্রতিনিধিদলের বৈঠক হয়। বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের সামনে এসব কথা বলেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, আামাদের বাজারের পাশাপাশি ভারতের বাজারেও ইতিমধ্যে পেঁয়াজের দাম বেড়ে গেছে। তবে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে বেশ কয়েকটি টিম আমদানির স্থানগুলোতে যেমন বেনাপোল ও হিলিতে যাবে। সেখানে দেখা হবে আমদানির কী অবস্থা। একটু দাম বেড়েছে বাজারে।

বাণিজ্যমন্ত্রী আরো বলেন, বন্যার কারণে সরবরাহে সমস্যা হয়েছে। আমরা জোর চেষ্টা করছি। টিসিবি বড় পরিসরে নামছে। আগামী ১৩ তারিখ থেকে ন্যায্যমূল্যে খোলাবাজারে পেঁয়াজ বিক্রি শুরু করবে। আমরা সর্বকালের রেকর্ড ভেঙে সর্বোচ্চ পরিমাণ পেঁয়াজ আমদানি করব।

টিপু মুনশি বলেন, গত বছর ভারত পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দিয়েছিল। এবার কিন্তু বন্ধ করেনি। গত বছর বন্ধ করার পর আমাদের এখানকার ব্যবসায়ীরা সুযোগ নিয়েছে। ভারত বন্ধ করে দেওয়ার ফলে আমরা নতুন বাজার থেকে আমদানি করতে শিখেছি।

টিপু মুনশি বিকল্প উৎস থেকে পেঁয়াজ আমদানির কথা উল্লেখ করে বলেন, তুরস্ক, মিসর, ইন্দোনেশিয়া- এসব দেশ থেকে গতবার পেঁয়াজ আসার কারণে এবারও আমাদের লোকজনের যোগাযোগ ভালো। আমরা তুরস্ক থেকে আমদানির জন্য টেন্ডারও করেছি টিসিবির মাধ্যমে। পেঁয়াজ আমদানিতে ট্যাক্স কমানোর জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়কে চিঠি দিয়েছি। আশা করছি, পাঁচ শতাংশ ট্যাক্স প্রত্যাহার করা হবে।

আপনার মতামত লিখুন :