বার্তামেউ’র জেল হতে পারে মেসি চলে গেলে

Sayed RokySayed Roky
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৪:১৪ PM, ০১ সেপ্টেম্বর ২০২০

নাটক জমে উঠেছে এখন আর্জেন্টাইন ফুটবল সুপারস্টার লিওনেল মেসির বার্সেলোনা ত্যাগ নিয়ে। ব্যুরোফ্যাক্সের মাধ্যমে মেসি তার ক্লাবকে বিদায় বলে দিলেও প্রেসিডেন্ট জোসেপ মারিয়া বার্তামেউ তাকে ধরে রাখতে চাইছেন। এজন্য তিনি বিভিন্ন কৌশলের আশ্রয় নিচ্ছেন। কখনও ভয় দেখাচ্ছেন আবার কখনও বা অনুরোধ। তবে বিবিসির স্প্যানিশ সাংবাদিক গিয়েম বালাগ দিয়েছেন গুরুতর এক তথ্য। মেসি বার্সা ছাড়লে নাকি বার্তামেউকে জেলে যেতে হতে পারে! এমনটাই শোনা যাচ্ছে।

বালাগ জানিয়েছেন, ‘বার্তোমেউ তার প্রতিদ্বন্দ্বীদের শক্তিশালী করতে চান না। তিনি যদি মেসিকে এখন কমদামে বা বিনামূল্যে বিক্রি করেন, পরবর্তী ক্লাব সভাপতি কিংবা ক্লাবের মৌসুম টিকিটধারীরা তার বিরুদ্ধে সম্পদের অপব্যবহার করার অভিযোগ তুলতে পারেন। এর ফলে তার নিজের পকেট থেকে বিশাল অঙ্ক ক্ষতিপূরণ হিসেবে দিতে হতে পারে এমনকী জেলেও যেতে হতে পারে! তাই মেসিকে আটকাতে শেষ পর্যন্ত বার্তামেউ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন’।

এদিকে বার্সেলোনা কোনো ধনকুবের গ্রুপ বা ব্যক্তির মালিকানাধীন নয়। ক্লাবের সদস্যরাই এর মালিক। ক্লাবের আয় ব্যয়, সম্পদ বৃদ্ধি ইত্যাদি ইস্যুতে সদস্যরা চাইলে যেকোনো মুহূর্তে প্রশ্ন তুলতে পারেন এবং আইনী ব্যবস্থা নিতে পারেন। মেসির বাই আউট ক্লজ ৭০ কোটি ইউরো। কিন্তু মেসিকে বিনামূল্যে ছেড়ে দিলে বিরাট লস হবে। তাছাড়া মেসি চলে গেলে স্পনসরবাবদ বিরাট অংকের লোকসান গুনতে হবে বার্সাকে। পরিচালনার ব্যর্থতায় ক্লাবের বর্তমান ও ভবিষ্যৎ আয়ে নেতিবাচক প্রভাব ফেলার অভিযোগে সদস্যরা চাইলে মামলা করতে পারেন! বার্তামেউয়ের বিরুদ্ধে!

এমন কোনো ঘটনা সত্যি সত্যি ঘটলে, বার্তামেউকে নিজের পকেট থেকে বিশাল পরিমাণ অংকের টাকা জরিমানা দিতে হবে। কারণ বার্সার মতো ক্লাবের লোকসান হলে সেটা বর্তমান ক্লাব সভাপতির ব্যক্তিগত সম্পত্তি থেকে গ্যারান্টি নেওয়া হয়। তাতে তিনি ব্যর্থ হলে ক্লাবের সম্পদের অপব্যবহার করার অভিযোগে যেতে হবে জেলে। যদিও ফুটবল বিশেষজ্ঞরা এতে মেসির কোনো দায় দেখছেন না। কারণ গত কয়েকমাস ধরেই মেসি বারবার ‘ক্লাব ঠিকমতো চলছে না। এভাবে চললে কোনো শিরোপাই পাওয়া হবে না বলে জানিয়েছেন তিনি।

আপনার মতামত লিখুন :