নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে এক গৃহবধূকে দুর্বৃত্তরা কুপিয়ে হত্যা করেছে। শনিবার রাত ৯টায় পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

এর আগে, শনিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে উপজেলার চরপার্বতী ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডে খালেক সিম্যানের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত গৃহবধূ নূর নাহার পান্না (৩২)  চরপার্বতী ইউনিয়নের খালেক সিম্যানের বাড়ির আমিরুল হকের স্ত্রী এবং সে তিন সন্তানের জননী ছিলেন।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে রয়েছে। তবে পুলিশ তাৎক্ষণিক এ হত্যাকাণ্ডের কোনো কারণ জানাতে পারেনি। এ সময় মরদেহের পাশে থেকে পুলিশ হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত একটি ছুরি উদ্ধার করে।

নিহতের স্বামী আমিরুল হক জানান, ঘটনার সময় তিনি বাড়িতে ছিলেন না।  কে বা কারা শনিবার সন্ধ্যায় তার স্ত্রীকে ছুরিকাঘাতে কুপিয়ে হত্যা করে, বসতঘরের পাশের পুকুরে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ছুরিসহ লাশ ফেলে দিয়ে যায়। এক পর্যায়ে বাড়ির লোকজন নিহতের ছুরিবিদ্ধ মরদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়।

কোম্পানীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মো. আরিফুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এখন পর্যন্ত হত্যার কোনো কারণ জানা যায়নি। বিষয়টি পুলিশ খতিয়ে দেখছে। পরবর্তীতে এ ঘটনায় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আপনার মতামত লিখুন :