ব্যায়াম নং- ০১
সর্বপ্রথম দেয়ালের সাথে পিঠ লাগিয়ে দাঁড়াবেন, এরপর এভাবে দাড়িয়ে থেকে নিজেকে দেয়ালের সমান্তরালে সোজা রাখবার ট্রাই করুন।  একই সাথে আপনাকে চেষ্টা করতে হবে, আপনার শরীরের পেছন দিকটির পায়ের গোড়ালি থেকে শুরু করে মাথা পর্যন্ত দেয়াল যেন দেয়াল স্পর্শ করতে পারে; এভাবে সোজা হয়ে দাড়াবার চেষ্টা করুন দেয়াল স্পর্শ করে। ব্যায়ামটি আট থেকে দশবার করুন এভাবে।

ব্যায়াম নং- ০২
১ম ব্যায়ামটি শেষ করার পর এই পর্যায়ে হাতে ভর করে ঝুলে পড়ুন
রিং বা বারের সাহায্যে। এবার নিজের শরীররের ভার পুরোপুরি ছেড়ে দিন। নিজের পা দুটোকে ঝুলিয়ে দিন। অনুভব করতে থাকুন মধ্যাকর্ষণ শক্তি আপনার উপরে। ১০ সেকেন্ড পর্যন্ত এভাবে ঝুলে থাকার পর নিজেকে ছেড়ে দিন। ঠিক একই ভাবে আবার করুন এই ব্যায়ামটি, এক সেটে আট থেকে দশ বার করতে পারেন।

ব্যায়াম নং- ০৩
এবার রিং ধরুন আবার, তবে ঝুলে থাকতে হবেনা এবার, বরং রিংটা ধরে উপরে উঠানোর চেষ্টা করুন নিজেকে, একবার এভাবে উপরে উঠতে পারলে এরপর নিজের বডির ভার ছেড়ে দিন। ছেড়ে দেয়ার পর অনুমানিক তিন মিনিট পর্যন্ত ঝুলে থাকুন। ৬ সেটে
এভাবে এই ব্যায়ামটি শেষ করুন।

মনে রাখবেন; শুরুতেই তিন মিনিট ধরে ঝুলতে যাবেন না। যেই পরিমাণ
আপনার শরীর নিতে পারবে; সেই পরিমাণ করবেন। এবং আস্তে আস্তে সময় বাড়িয়ে তিন মিনিট করুন।

ব্যায়াম নং- ০৪
এই পর্যন্ত আসার পর শুধু মাত্র রিং বা বার ধরে তিন মিনিট করে ঝুলে থাকুন এবং ছয় বার করুন এভাবে।

ব্যায়াম নং- ০৬ এই পর্যায়ে এসে ব্যায়ামটি একটু কঠিন মনে হবে। এবার আপনাকে রিং এ বা বারে উল্টা হয়ে পায়ের হাঁটুর ভাজের সাহায্যে ঝুলতে হবে। উল্টা হয়ে ঝুলে নিজের শরীরকে ছেড়ে দিন; এবার হাত দুটিকে ঝুলতে দিন,  এক থেকে দশ পর্যন্ত এবার গুনতে থাকুন। গোনা শেষ হবার পর নেমে পড়ুন।

অন্য কারো সাহায্য নিন এ পর্যায়টি শেষ করতে। আস্তে ধীরে করার চেষ্টা করুন; একবারে না পারলে দু বার ট্রাই করবেন, মনে রাখবেন জোর খাটানো যাবে না। আস্তে ধীরে শেখার চেষ্টা করতে হবে। যদি এরপরও আয়ত্তে আনতে না পারেন; তখন ব্যায়ামটির সবচেয়ে কাছাকাছি যতটুকু করতে পারবেন সেটাই করবেন। তাতে কিছু টা হলে ও সাহায্য হবে ইনশাআল্লাহ। 

আপনার মতামত লিখুন :