আজ রবিবার (৪ অক্টোবর)
চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার গোবিন্দপুর গ্রাসে স্বামী পিয়ার আলী মোল্লা (৫৫) এবং তার স্ত্রী রোজিনা খাতুনকে (৪৫) কুপিয়ে হত্যা করেছে দুবৃত্তরা। পিয়ার আলী ওই গ্রামের মৃত বিবাদ আলি মোল্লার ছেলে। সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তবে কখন কিভাবে এই হত্যার ঘটনা ঘটেছে তা এখনো জানা যায়নি।

হাউলি ইউনিয়নের ৭নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য শাহা জামাল জানান, রবিবার পিয়ার আলী মেয়েকে শ্বশুরবাড়ি থেকে আনতে যাওয়ার কথা ছিলো। তবে কেউ তাকে আনতে যায়নি। বাড়িতে একাধিক বার ফোন দিলেও ফোন রিসিভ হয়নি। বার বার ফোন দিয়ে  রিসিভ না হওয়ায় সন্ধ্যায় মেয়ে বাড়িতে ঘরের বন্ধ দরজা খুলে ঘরে ঢুকে দেখতে পায় তার মা-বাবার জবাই করা মরদেহ ঘরের মেঝেতে পড়ে আছে। তখন তার চিৎকারে এলাকাবাসী ছুটে এসে থানা পুলিশে খবর দিলে থানা পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছে। তবে কখন কে বা কারা এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটিয়েছে কেউ বলতে পারছে না। পুলিশের ঊর্দ্ধতন কতৃপক্ষ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

দামুড়হুদা মডেল থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই বাকী বিল্লাহ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, কে বা কারা কি কারণে তাদেরকে হত্যা করেছে এখনি বলা যাচ্ছে না। তবে এই ঘটনার তদন্ত চলছে।

আপনার মতামত লিখুন :