পূর্ব পরিকল্পনা মাফিক ২৭ সেপ্টেম্বর কলম্বোর উদ্দেশে রওয়ানা হবে বাংলাদেশ টেস্ট দল। মোটামুটি সব অনিশ্চয়তা কেটে গেছে। বাকি শুধু আনুষ্ঠানিক ঘোষণা। ডাম্বুলায় ১৫ দিনের ক্যাম্পশেষে ক্যান্ডিতে যাবেন মমিনুল হকরা। সেখানে ১৮-২০ অক্টোবর শ্রীলঙ্কা ‘এ’ দলের বিপক্ষে তিন দিনের ট্যুর ম্যাচের পর ২৪ অক্টোবর শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন টেস্ট সিরিজের প্রথমটিতে খেলতে নামবে বাংলাদেশ দল, যা হবে করোনা বিরতির পর বাংলাদেশ ক্রিকেটের মাঠে ফেরাও।

কোয়ারেন্টিনের কড়াকড়ির কারণে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের (এসএলসি) প্রাথমিক প্রস্তাবে সফরে যেতে রাজী হয়নি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। তবে বুধবার নিজ দেশের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অধীন করোনা টাস্কফোর্সের সঙ্গে আলোচনার পর সফরের পালে জোর হাওয়া লেগেছে। বিসিবি যতটুকু ছাড় চেয়েছিল, তারচেয়েও বেশি ছাড় দিচ্ছে শ্রীলঙ্কা।

এখন আর কোয়ারেন্টিন নয়, ডাম্বুলায় ৭ দিন আইসোলেশনে থাকতে হবে মমিনুলদের। ওখানে পৌঁছানোর পর প্রথম করোনা টেস্ট নেগেটিভ এলেই নেমে পড়া যাবে অনুশীলনে। তবে হোটেলে এবং মাঠে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। ৭ দিন পর পুরোদমে অনুশীলনের অনুমতিও পাবে বাংলাদেশ।

তাতে এ সফরের পথে আর কোনো বাধা নেই। যদিও এখনই আনুষ্ঠানিকভাবে চূড়ান্ত কিছু বলতে নারাজ বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজাম উদ্দিন চৌধুরী, ’ওদের (এসএলসি) সঙ্গে আমাদের নিয়েমিত যোগাযোগ আছে। শুনেছি সরকারের সঙ্গে ওদের ফলপ্রসূ আলোচনাও হয়েছে। তবে এর কিছু আনুষ্ঠানিকতা আছে। আশা করি বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) ওরা কিছু একটা জানাবে।’

সেটা ইতিবাচক হবে কিনা জানতে চাইলে ‘স্বাগতিকদের কাছ থেকেই ঘোষণা আসুক, সেটা যা-ই হোক না কেন। তবে আমরা আশাবাদী’ বলে জানান তিনি।

আপনার মতামত লিখুন :